Powered by Ajaxy
May 9, 2021
93 Views
Comments Off on ফাইবার কি? Fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

ফাইবার কি? Fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

Written by

আমাদের মধ্যে যে বা যারা ফ্রিল্যান্সিং পেশার সাথে সম্পৃক্ত, তাদের কাছে ফাইবার একটি জনপ্রিয় নাম। প্রশ্ন হল fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায় এটা নিয়ে?

আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে যেকোনো মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে চান, তাহলে এই মার্কেটপ্লেসের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার আগে এখানে কি কি কাজ পাওয়া যায় সে সম্পর্কে জেনে নেয়া আবশ্যক।

আর আমরা সকলেই জানি যে ফাইবার হলো একটি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস। যেখানে প্রতিদিন প্রায় মিলিয়ন এর উপরে কাস্টমারে আনাগোনা হয়ে থাকে।

সেজন্য একজন দক্ষ এবং সফল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ফাইভারের সাথে আপনি যদি সম্পৃক্ত হতে চান, তাহলে fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায় সেটি জেনে নেয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র।

আর আজকের এই আর্টিকেলের মূলত আলোচনা করা হবে তাই ফাইবারে কি কি কাজ পাওয়া যায় এই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য। যা একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপনার প্রয়োজনে আসবে।

ফাইবার কি?

ফাইবার হলো একটি ফ্রীল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস। এই মার্কেটপ্লেসে দক্ষ এবং চৌকস ফ্রিল্যান্সারদের আবির্ভাব ঘটে, তার সাথে আনাগোনা করতে থাকেন প্রয়োজনীয় কাস্টমাররা।

মূলত ফ্রিল্যান্সিং শিখে নেওয়ার পরে আপনার অর্জনকে কৃত জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করার যে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম রয়েছে, সেগুলোর মধ্যে থেকে ফাইবার অন্যতম।

তাছাড়াও জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে থেকে ফাইবার কে একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় রাখা হয়, কারণ এখানে প্রতিদিন কয়েক মিলিয়ন ইউনিক ভিজিটরের আগমন ঘটে।

ফাইবার কি? এই প্রশ্নের জবাব এক কথায় দিতে গেলে বলতে হবে, ফাইবার হলে একটি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম। যার মাধ্যমে আপনি আপনার স্কিল কে কাজে লাগিয়ে প্রচুর পরিমাণে টাকা আয় করতে পারবেন।

fiverr এ কাজ করার নিয়ম

ফাইবারে অনেক রকম কাজ পাওয়া যায়, এই বিষয়টি সম্পর্কে জেনে নেয়ার আগে আপনাকে হয়তো ফাইবারে কাজ করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেয়া লাগতে পারে।

কারণ ফাইবারে কি রিলেটেড কাজ গুলো প্রতিনিয়ত আনাগোনা করে, সেগুলো জেনে নেয়ার পরে এগুলো করতে চাইলে এখানে কাজ করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিতে হবে।

যেহেতু, আপনি একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে এই প্লাটফর্মে সম্পৃক্ত হবেন, তাই এখানে সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য ফাইবারে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

মূলত, এই প্ল্যাটফর্মটিতে অ্যাকাউন্ট তৈরি করা রীতিমতো খুবই সহজ একটি ব্যাপার। আপনি চাইলে আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট, ফেইসবুক একাউন্ট কিংবা ডাইরেক্টলি জিমেইল একাউন্টের মাধ্যমে একাউন্ট তৈরীর কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

যখনই, একাউন্ট তৈরীর কাজ সম্পন্ন করে নিবেন এবং ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করে নিবেন, তখন ফাইবার একাউন্টের ড্যাশবোর্ডে চলে যেতে পারবেন; এবং এখানে বিভিন্ন ক্যাটাগরির কাজ দেখতে পারবেন।

ফাইবার কি? fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?
ফাইবার কি? fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

আর অ্যাকাউন্ট তৈরি করা সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনি যে প্রফেশনে কাজ করতে চান, সেই প্রফেশনে একটি গিগ তৈরি করে নিন। যা আপনার কাজের ধারা সম্পর্কে বর্ণনা করবে।

অর্থাৎ আপনি একটি কাজ করার পরিবর্তে কত ডলার যে কারো কাছ থেকে নিতে চাইবেন কিংবা এটি করে দিতে কতদিন সময় লাগবে? সেই সম্পর্কে আপনার তৈরীকৃত গিগ এর মাধ্যমে বর্ণনা করতে পারবে।

আর আপনার গিগ যদি আকর্ষনীয় হয়ে থাকে এবং এতে যদি যে কারো মন গলাতে সক্ষম হয়, তাহলে ওই ব্যক্তি আপনাকে তার কাজ করিয়ে নেয়ার জন্য রিকুয়েস্ট করবে।

আর এভাবেই মূলত ফাইবারে কাজ করতে হয়। এটা সম্পর্কে আমরা প্রায় সকলেই জানি মূলত অন্যান্য ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস আর ফাইবার মার্কেটপ্লেস এ কাজ রীতিমতো একই।

fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়

এবার আপনি যদি ফাইবার মার্কেটপ্লেস এ কাজ করতে চান, তাহলে এই মার্কেটপ্লেসে কি কি রকমের কাজ পাওয়া যায় সেই সম্পর্কে জেনে নেয়া আবশ্যক।

মূলত, ফাইবারে কাজ করার জন্য বিভিন্ন রকমের ক্যাটাগরি বিদ্যমান রয়েছে। আর এই সমস্ত ক্যাটাগরির মধ্যে সাব-ক্যাটাগরি হিসেবে অনেকগুলো কাজ আপনি দেখতে পারবেন।

তাহলে আর দেরি না করে এখনি দেখে নিন ফাইবারে কাজ করার জন্য যে সমস্ত ক্যাটাগরি রয়েছে সে সমস্ত ক্যাটাগরি এবং সাব-ক্যাটাগরি সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য।

গ্রাফিক্স এবং ডিজাইন

গ্রাফিক্স এবং ডিজাইন ক্যাটাগরির মধ্যে যে সমস্ত সাব-ক্যাটাগরি কাজসমূহ রয়েছে সেগুলো নিচে মেনশন করা হলো।

  • লোগো ডিজাইন।
  • ব্র্যান্ড স্টাইল গাইড।
  • খেলা শিল্প।
  • স্ট্রেমারদের জন্য গ্রাফিক্স।
  • ব্যবসায়িক কার্ড এবং স্টেশনারী
  • চিত্রণ।
  • প্যাটার্ন ডিজাইন।
  • প্যাকেজিং নকশা।
  • ব্রোশিওর ডিজাইন।
  • পোস্টার ডিজাইন।
  • সিগনেজ ডিজাইন।
  • ফ্লাইয়ার ডিজাইন।
  • বইয়ের নকশা।
  • অ্যালবাম কভার ডিজাইন।
  • পডকাস্ট কভার আর্ট।
  • ওয়েব এবং মোবাইল ডিজাইন।
  • সামাজিক মিডিয়া ডিজাইন।
  • ইমেল ডিজাইন।
  • আইকন ডিজাইন।
  • এআর ফিল্টার এবং লেন্স।
  • ক্যাটালগ ডিজাইন।
  • আমন্ত্রণ নকশা।
  • প্রতিকৃতি এবং ক্যারিকেচারগুলি।
  • কার্টুন এবং কমিকস।
  • উলকি নকশা।
  • ওয়েব ব্যানার।
  • ফটোশপ সম্পাদনা।
  • আর্কিটেকচার এবং অভ্যন্তর নকশা।
  • আড়াআড়ি নকশা।
  • তথ্যের আদর্শ স্থাপন।
  • চরিত্রের মডেলিং।
  • শিল্প ও পণ্য নকশা।
  • ট্রেড বুথ ডিজাইন।
  • ফ্যাশন ডিজাইন।
  • টি-শার্ট এবং পণ্যদ্রব্য।
  • গহনা ডিজাইন নতুন।
  • উপস্থাপনা নকশা।
  • ইনফোগ্রাফিক ডিজাইন।
  • পুনরায় নকশা।
  • স্টোরিবোর্ডগুলি।
  • গাড়ি মোড়ানো।
  • মেনু ডিজাইন।
  • পোস্টকার্ড ডিজাইন।
  • ভেক্টর ট্র্যাকিং।
  • টুইচ স্টোর।

ডিজিটাল মার্কেটিং

এছাড়াও আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং এ দক্ষ হয়ে থাকেন, তাহলে এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভিতর যে সমস্ত সাব-ক্যাটাগরি রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলো।

অর্থাৎ ডিজিটাল মার্কেটিং সেক্টরে একজন দক্ষ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিম্নলিখিত ক্যাটাগরির মধ্যে আপনি ফাইবারে কাজ পাবেন।

  • ডিজিটাল মার্কেটিং।
  • আপনার ব্যবসাকে অনলাইন আপডেট এবং আপগ্রেড করুন।
  • সামাজিক মিডিয়া মার্কেটিং।
  • সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন (এসইও)।
  • সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বিজ্ঞাপন
  • জনসংযোগ।
  • বিষয়বস্তু মার্কেটিং।
  • পডকাস্ট বিপণন।
  • ভিডিও বিপণন।
  • ইমেইল – মার্কেটিং।
  • গণ – অর্থায়ন।
  • সার্চ ইঞ্জিন বিপণন (এসইএম)।
  • বিজ্ঞাপন প্রদর্শন।
  • বিপণন কৌশল।
  • ওয়েব অ্যানালিটিক্স।
  • বই ও ইবুক বিপণন।
  • প্রভাবক বিপণন।
  • কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট।
  • স্থানীয় এসইও।
  • ই-কমার্স বিপণন।
  • অ্যাফিলিয়েট বিপণন।
  • মোবাইল অ্যাপ বিপণন।
  • সংগীত প্রচার।
  • ওয়েব ট্র্যাফিক।
  • পাঠ্য বার্তা বিপণন।

লেখালেখি এবং ট্রানসলেশন

এছাড়াও লেখালেখি এবং ট্রান্সলেশন করার সেক্টরে যে সমস্ত জনপ্রিয় কাজগুলো আপনি পেতে পারেন, সেগুলো নিচে মেনশন করা হলো।

  • নিবন্ধ এবং ব্লগ পোস্ট।
  • অনুবাদ।
  • প্রুফ্রেডিং এবং সম্পাদনা।
  • ওয়েবসাইট সামগ্রী।
  • বই এবং ই-বুক রচনা।
  • ব্র্যান্ড ভয়েস এবং টোন।
  • ইউএক্স রাইটিং।
  • লেখা শুরু করুন।
  • কভার চিঠি।
  • প্রযুক্তিগত লেখা।
  • লিঙ্কডইন প্রোফাইলসমূহ।
  • সাদা কাগজ।
  • পডকাস্ট রচনা।
  • কেস স্টাডিজ।
  • সোশ্যাল মিডিয়া কপি।
  • বিজ্ঞাপন কপি।
  • বিক্রয় অনুলিপ।
  • সংবাদ বিজ্ঞপতি।
  • পণ্য বিবরণ।
  • স্ক্রিপ্ট লেখা।
  • বই সম্পাদনা।
  • ইমেল কপি।
  • স্পিচ রাইটিং।
  • ব্যবসায়ের নাম ও স্লোগান।
  • সৃজনশীল লেখা।
  • eLearning বিষয়বস্তু বিকাশ ।
  • বিটা রিডিং।
  • গ্রান্ট লেখা।
  • প্রতিলিপি।
  • আইনি লেখা।
  • গবেষণা ও সংক্ষিপ্তসার।

ভিডিও এবং অ্যানিমেশন

এছাড়াও ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মে ভিডিও এবং এনিমেশন সেক্টরে কাজ করার ক্ষেত্রে যে সমস্ত কাজগুলো আপনি পাবেন সেগুলো নিচে থেকে দেখে নিতে পারেন।

ফাইবার কি? fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?
ফাইবার কি? fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?
  • হোয়াইটবোর্ড এবং অ্যানিমেটেড ব্যাখ্যাকারী।
  • ভিডিও এডিটিং।
  • সংক্ষিপ্ত ভিডিও বিজ্ঞাপন।
  • অ্যানিমেটেড জিআইএফ।
  • লোগো অ্যানিমেশন।
  • ইন্ট্রস এবং আউটরোস।
  • অ্যাপ এবং ওয়েবসাইট পূর্বরূপ।
  • লাইভ অ্যাকশন ব্যাখ্যাকারী।
  • চরিত্র অ্যানিমেশন।
  • 3 ডি পণ্য অ্যানিমেশন।
  • ই-কমার্স প্রোডাক্ট ভিডিও।
  • লটি এবং ওয়েবসাইট অ্যানিমেশন।
  • বক্তারা ভিডিও।
  • ভিডিও আনবক্সিং।
  • লিরিক ও মিউজিক ভিডিও।
  • eLearning ভিডিও প্রোডাকশন।
  • সাবটাইটেল এবং ক্যাপশন।
  • চাক্ষুষ প্রভাব।
  • বাচ্চাদের জন্য অ্যানিমেশন।
  • স্লাইডশো ভিডিও।
  • ড্রোন ভিডিওগ্রাফি।
  • স্ক্রিনকাস্টিং ভিডিও।
  • গেম ট্রেলার।
  • বইয়ের ট্রেইলার।
  • স্ট্রিমারদের জন্য অ্যানিমেশন।
  • ভিডিওনুতে নিবন্ধন।
  • রিয়েল এস্টেট প্রচার।
  • পণ্য ফটোগ্রাফি।
  • স্থানীয় ফটোগ্রাফিবেটা।

মিউজিক এবং অডিও

মিউজিক এবং অডিও সেক্টরে আপনি যদি কাজ করতে চান, তাহলে ফাইবারে যে সমস্ত কাজ পাওয়া যাবে সেগুলো লিস্ট নিচে বর্ণনা করা হলো।

  • ভয়েস ওভার।
  • মিক্সিং এবং মাস্টারিং।
  • প্রযোজক এবং সুরকার।
  • গায়ক এবং কণ্ঠশিল্পী।
  • সেশন মিউজিশিয়ানস।
  • অনলাইন সঙ্গীত পাঠ।
  • গীতিকার।
  • বিট মেকিংএনইউ।
  • পডকাস্ট সম্পাদনা।
  • অডিওবুক প্রোডাকশন।
  • অডিও বিজ্ঞাপন উত্পাদন।
  • সাউন্ড ডিজাইন।
  • সংলাপ সম্পাদনা।
  • সংগীত ট্রান্সক্রিপশন।
  • ভোকাল টিউনিং।
  • জিংলস এবং ইন্ট্রস।
  • ডিজে ড্রপস এবং ট্যাগস।
  • ডিজে মেশানো।
  • রিমিক্সিং এবং ম্যাশআপস।
  • সিন্থ প্রিসেটস।
  • ধ্যান সংগীত ।

প্রোগ্রামিং এবং টেক

এছাড়াও একজন প্রোগ্রামার আর টেকনিশিয়ান হিসেবে ফাইবারের যে সমস্ত কাজ আপনি পেতে পারেন সেগুলো লিস্ট নিচে থেকে দেখে নিন।

  • ওয়ার্ডপ্রেস।
  • ওয়েবসাইট নির্মাতারা এবং সিএমএস।
  • ই-বাণিজ্য উন্নয়ন।
  • খেলার প্রোগ্রাম উন্নত করা।
  • স্ট্রিমার্স NEW এর জন্য বিকাশ।
  • মোবাইল অ্যাপস।
  • ওয়েব প্রোগ্রামিং।
  • ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশন।
  • অনলাইন কোডিং পাঠ।
  • চ্যাটবটস।
  • সাইবারসিকিউরিটি এবং ডেটা সুরক্ষা।
  • সমর্থন ও তথ্যপ্রযুক্তি।
  • ফাইল রূপান্তর করুন।
  • ব্যবহারকারী পরীক্ষা
  • প্রশ্নোত্তর ও পর্যালোচনা।

ডাটাবেজ এবং প্রসেসিং

ডাটাবেজ এবং প্রসেসিং এর কাজে করার ক্ষেত্রে যে সমস্ত sub-category যুক্ত কাজ রয়েছে, সেগুলো সম্পর্কে জেনে নিন নিম্নরূপে।

  • ডাটাবেস।
  • ডেটা অ্যানালিটিক্স।
  • তথ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ।
  • ডেটা ভিজ্যুয়ালাইজেশন।
  • তথ্য বিজ্ঞান।
  • তথ্য অনুপ্রবেশ।

বিজনেস

এছাড়াও বিজনেস সেক্টরে যে সমস্ত কাজ রয়েছে সেগুলো নিচে থেকে দেখে নিন।

  • ভার্চুয়াল সহকারী।
  • ই-কমার্স ম্যানেজমেন্ট।
  • গ্রাহক যত্ন।
  • বাজার গবেষণা।
  • ব্যবসায়িক পরিকল্পনা।
  • এইচআর পরামর্শ।
  • আইনী পরামর্শ।
  • আর্থিক পরামর্শ।
  • ব্যবসা পরামর্শকারী।
  • উপস্থাপনা।
  • সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট।
  • অগ্রজ প্রজন্ম।
  • খেলা ধারণা নকশা।
  • কেরিয়ার পরামর্শ।
  • প্রকল্প পরিচালনা।
  • ফ্লায়ার ডিস্ট্রিবিউশন।
  • লাইফ স্টাইল
  • এছাড়াও লাইফস্টাইল সেক্টরে যে সমস্ত
  • কাজগুলো আপনি পাবেন, সেগুলো
  • চাইলে নিচে থেকে দেখে নিতে পারেন।
  • অনলাইন টিউটরিং।
  • গেমিং।
  • জ্যোতিষ ও মনস্তত্ত্ব।
  • মডেলিং ও অভিনয়।
  • ফিটনেস পাঠ।
  • নাচের পাঠ।
  • লাইফ কোচিং।
  • গ্রিটিং কার্ড এবং ভিডিওগুলি।
  • ব্যক্তিগত স্টাইলিস্ট।
  • রান্না পাঠ।
  • কারুকর্ম পাঠ।
  • চারু এবং কারু।
  • স্বাস্থ্য, পুষ্টি এবং ফিটনেস।
  • পরিবার ও বংশসূত্রে।
  • আপনার বার্তা চালু …
  • সংগ্রহযোগ্য।
  • ভ্রমণ।

আশা করি fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায় এর প্রশ্নের অবসান ঘটেছে; আর মূলত উপরে যে সমস্ত বর্ণিত কাজসমূহ রয়েছে, সেগুলো সম্পর্কে দক্ষতা থাকলে আপনি ফাইবারে কাজ করতে পারবেন।

বলাবাহুল্য, এখানে থাকা কাজের লিস্ট প্রতিনিয়ত আপডেট হচ্ছে এবং প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কাজ যুক্ত করা হচ্ছে। যার কারণে আপনি ফাইবার ওয়েবসাইটে ভিজিট করার মাধ্যমে আপডেট দেখে নিতে পারেন।

Article Categories:
Freelancing · Online earning

Comments are closed.