Mar 27, 2021
388 Views
Comments Off on ফাইবার থেকে ইনকাম করবেন যেভাবে – How To Make Money From Fiverr Bangla

ফাইবার থেকে ইনকাম করবেন যেভাবে – How To Make Money From Fiverr Bangla

Written by

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা আজকের এই ব্লগে আমি আপনাদেরকে দেখাবো ফাইবার থেকে কিভাবে ইনকাম করবেন প্রফেশনালভাবে ফ্রিল্যান্সিং যারা করেন তাদের অধিকাংশ মানুষই ফাইবার ব্যবহার করে থাকে ফাইবার মার্কেটপ্লেস টা সত্যিই অনেক ভালো কারণ এখানে যদি সুন্দর করে গিগ আপনি তৈরি করে দিতে পারেন আপনার কাজটা কে বোঝাতে পারেন ক্লায়েন্ট কে তাহলে বায়ার আপনাকে নিজেই খুঁজে নিবে এবং অর্ডার করবে। আপনি অর্ডার সাবমিট করে দিলে বায়ার যদি আপনার কাজ গ্রহন করে আপনার একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে। কিভাবে ফাইবার থেকে ইনকাম করবেন সবকিছু আজকের এই ব্লগে আমি আপনাদের সাথে বিস্তারিত দেখিয়ে দিবো তো চলুন মূল কথায় চলে যাই।

ফাইবার থেকে যদি আপনি ইনকাম করতে চান তাহলে একদম প্রথমে যে জিনিসটা আপনার থাকাই লাগবে সেটা হলো কোন বিষয়ের উপর আপনার দক্ষতা। এখানে একদম নতুনদের জন্য ইনকামের তেমন কোন ভাল সুযোগ নাই বিষয় টা এমন যে আপনি এখানে আসবেন কাজ করতে করতে শিখবেন এরকম হলে হবেনা। আপনাকে অবশ্যই যেকোনো একটা বিষয়ের উপরে ভালো দক্ষ হয়ে সেই বিষয়টা নিয়ে ফাইবারে কাজ করতে হবে তাহলে আপনি ক্লায়েন্টের কাজটাকে সঠিকভাবে করে দিতে পারবেন এবং সেখান থেকে ভালো রেটিং পাবেন অনেক সময় টিপ বা বোনাস পাবেন। এভাবেই আপনি ধীরে ধীরে এগোতে থাকবেন যখন আপনার প্রোফাইলে অর্থাৎ আপনার কাজের উপরে ক্লায়েন্টরা ভালো রেটিং দিবে তখন ধীরে ধীরে আপনার প্রোফাইলটা উপরে চলে যাবে অনেক বেশি কাজ পাবেন অনেক ইনকাম হবে।

যদি আপনারা প্রশ্ন করেন যে ফাইবারে কোন কোন বিষয়ের উপরে কাজ পাওয়া যায় বা কোন কোন বিষয় এখানে কাজ করে ক্লায়েন্টের থেকে ইনকাম করা যায়? প্রকৃতপক্ষে অনলাইন জগতের যত ধরনের কাজ রয়েছে সব ধরনের কাজই ফাইবারের রয়েছে। ফাইবার থেকে যদি আপনি ইনকাম করতে চান প্রথমত আপনার দক্ষতা থাকা লাগবে যে কোন এক বা একাধিক বিষয়ে। এরপর আপনাকে ফাইবার থেকে ইনকাম করার জন্য একটা একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে, ফাইবারে গিয়ে সরাসরি আপনি একটা একাউন্ট ক্রিয়েট করবেন এবং আপনার প্রোফাইলটা কে সুন্দর করে সাজিয়ে নেবেন এরপর আপনি যে বিষয়ের উপরে দক্ষ যে বিষয়টা নিয়ে ফাইবারে কাজ করতে চাচ্ছেন সেই বিষয়ের উপরে আপনি ফাইবারে গিগ আপলোড করবেন প্রথম পর্যায়ে গিগের প্রাইস টা একটু কম দেওয়ার চেষ্টা করবেন অনেক বেশি দিবেন না কারন আপনি নতুন সেলার অনেক বেশি প্রাইস দিলে আপনার গিগ বায়ার কিনবে না বা আপনাকে কাজ দিবে না।

গিগ দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেকে বলে যে ১ থেকে ২ টা গিগ দেওয়া ভালো, সেক্ষেত্রে আমি বলব যে আপনি চাইলে সর্বোচ্চ ৭ টা গিগ ও দিতে পারেন। তবে গিগ দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রত্যেকটা গিগ ভালো করে এসইও করে দিবেন। আপনি একদিনে সাতটা গিগ আপলোড করতে যেয়ে যদি দেখেন যে গিগের কোয়ালিটি খারাপ হয়ে যাচ্ছে তাহলে কিন্তু হবে না, অবশ্যই আপনার গিগ সর্বোচ্চ কোয়ালিটিফুল হতে হবে! কারণ অন্যান্য গিগের তুলনায় আপনার গিগ টা যদি সুন্দর না হয় তাহলে ক্লায়েন্টরা আপনাকে কাজ দিবে না। সুন্দরভাবে কয়েকটা গিগ আপলোড করার পরে অটোমেটিকলি আপনার একাউন্টে অর্ডার চলে আসতে পারে আবার যদি অর্ডার না আসে সেক্ষেত্রে আপনি বায়ার রিকোয়েস্ট পাঠাতে পারেন।

দেখবেন কয়েক দিন এভাবে বায়ার রিকোয়েস্ট পাঠাতে পাঠাতে কোন একটা বায়ার আপনাকে অর্ডার করে বসবে অথবা মেসেজ করে আপনাকে কাজ দিবে। যখন তার কাজটি সঠিকভাবে করে দিতে পারবেন এরপর কাজ যখন জমা দিবেন, অর্ডার ডেলিভারি দেওয়ার পর এবার যদি আপনাকে 5★ স্টার রেটিং দেয় তাহলে আপনার প্রোফাইলে ফাইভ স্টার রেটিং চলে আসতেছে! এরপর থেকে আপনি কনটিনিউ কিছুদিন পরপর কাজ পেতে থাকবেন এরপর এগুলো যদি আপনি সঠিকভাবে করতে পারেন ফাইভ স্টার রেটিং আনতে পারেন তাহলে ধীরে ধীরে আপনার গিগ/প্রোফাইলটা আরও অনেক বেশি রেংকে চলে যাবে! ধীরে ধীরে আপনার গিগ গুলো রেংক করবে বেশি বেশি কাজ পাবেন এবং এখান থেকে বেশি বেশি ইনকাম হবে এবং যখন আপনার মাত্র ২০ ডলার ইনকাম হবে, তখন চাইলে আপনি পেপাল এবং ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পেওনিয়ার এর মাধ্যমে টাকাগুলো ব্যাংকে ট্রান্সফার করে ব্যাংক থেকে উঠিয়ে নিতে পারবেন।

আপনি যদি ইন্টারনেট জগতে ভালো কোন কাজ জেনে থাকেন প্রফেশনালি কাজটা করতে পারবেন এরকম যদি কোন বিষয়ে আপনার দক্ষতা থাকে তাহলে ফাইবারে একটা একাউন্ট ক্রিয়েট করে সেই বিষয়ের উপরে কয়েকটা গিগ দিয়ে ফাইবার থেকে ভালো পরিমাণে ইনকাম করতে পারবেন। আশা করতেছি আজকের এই ব্লগে আমি আপনাদেরকে বিস্তারিত দেখাইতে পারছি কিভাবে ফাইবার থেকে ইনকাম করবেন

Article Categories:
Online earning

Comments are closed.

close