Powered by Ajaxy
Nov 20, 2019
986 Views
Comments Off on দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

Written by

স্মার্টফোন বাজারে ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে চলছে তীব্র প্রতিযোগিতা। ফলে প্রতিনিয়ত বাজারে যুক্ত হচ্ছে নতুন সব ফিচার সমৃদ্ধ স্মার্টফোন।

তবে বর্তমানে বাজারে দামি স্মার্টফোনগুলোর চেয়ে তুলনামূলক কমদামি স্মার্টফোনগুলোর চাহিদাই সবচেয়ে বেশি।

সে অনুযায়ী আপনার বাজেট যদি দশ হাজার টাকার মধ্যে হয়, তাহলে বলা যেতে পারে মোটামুটি মানের একটি ভালো স্মার্টফোন আপনি পেতে পারেন।

এই সেগমেন্টে যে কয়টি স্মার্টফোন একাধিক ফিচার-সহ দশ হাজারের মধ্যে পাওয়া সম্ভব, সবগুলোই আপনাদের জন্য আজকের পোস্টে তুলে ধরা হলো।

দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

৪-৫ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে তিনটি স্মার্টফোন রয়েছে Maximus D1, Maximus P7 এবং Walton Primo EF8।

Maximus D1 (4G)

Maximus D1 (4G) - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

লো প্রাইসে ফোরজি সমর্থিত Maximus D1 ফোনে রয়েছে ৫ ইঞ্চি ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো এডিশন)।

ফোনটিতে ১.৩ গিগাহার্টজের স্প্রেডট্রাম (SC9832E) প্রসেসরের পাশাপাশি রয়েছে মালি-টি ৮২০ জিপিইউ। সাথে থাকছে ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

ফোনটিতে থাকছে ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি স্লট যার সাহায্য ফোনের স্টোরেজ ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য Maximus D1 ফোনের পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ২ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফোনটির দাম ৪ হাজার ৫৯০ টাকা যা রবি শপ থেকে কেনা যাবে।

Maximus D1 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্টজ স্প্রেডট্রাম (SC9832E) চিপসেট
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Maximus P7 (4G)

Maximus P7 (4G) - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

লো প্রাইসে ফোরজি সমর্থিত ম্যাক্সিমাসের আরেকটি ফোন হলো এই Maximus P7

এই ফোনটিতেও রয়েছে ৫ ইঞ্চি ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে, অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো এডিশন) আপারেটিং সিস্টেম, ১ জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা।

তবে এতে আরো ভালো ১.৩ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MTK6739) প্রসেসর রয়েছে, যা নিশ্চয় ম্যাক্সিমাস ডি১ ফোনের চেয়ে ভালো পারফরম্যান্স দিবে।

ফোনটিতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে পাওয়ার ভিআর (GE8100)। এতে ২ হাজার ৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি থাকায় ব্যাকআপও বেশি পাওয়া যাবে।

ফোনটির দাম ৪ হাজার ৬৯৯ টাকা যা ম্যাক্সিমাস ডি১ হতে কিছু টাকা বেশি। ফোনটি জিপি অনলাইন বা অফলাইন শপে পাওয়া যাবে।

Maximus P7 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MTK6739) চিপসেট
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ হাজার ৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Walton Primo EF8 (4G)

Walton Primo EF8 (4G) - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

লো প্রাইসে ফোরজি সমর্থিত আরেকটি বেস্ট স্মার্টফোন হলো Walton Primo EF8। ফোনটিতে ১.৪ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6580M) চিপসেট রয়েছে, যা ম্যাক্সিমাস পি৭ এবং ম্যাক্সিমাস ডি১ ফোনে থাকা চিপসেট হতে ভালো পারফর্মেন্স করবে।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো ভার্সন) আপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনটিতে রয়েছে ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। থাকছে মালি-টি ৮২০ জিপিইউ।

তবে এই ফোনটিতে ওয়াল্টন কোনো এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহার করেনি। তার বদলে ওয়াল্টন ব্যবহার করেছে ১৮:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিওয়ের ৪.৯৫ ইঞ্চি FWVGA+ ডিসপ্লে।

এটি এই ফোনের একটি ড্রব্যাক বলা যেতে পারে। ওয়াল্টন ফোনটিতে একটি এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহার করলে হয়তো এটি তাদের জন্য একটা টার্নিং পয়েন্ট হতে পারতো।

যায়হোক, ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফোনটিতে বেশ কিছু অ্যাডভান্স ক্যামেরা ফিচার রয়েছে।

অটিজি সমর্থিত ফোনটিতে ব্যাকআপ হিসেবে থাকছে ২ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। তবে এতে তিনটি ভিন্ন ব্যাটারি সেভিং মোড থাকায় কিছুটা বেশি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৪ হাজার ৬৯৯ টাকায়

Walton Primo EF8 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৪.৯৫ ইঞ্চি FWVGA+ ডিসপ্লে
  • ১.৪ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6580M) চিপসেট
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

৫-৬ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে দুইটি স্মার্টফোন রয়েছে Walton Primo G8i এবং Walton Primo GF7।

Walton Primo G8i

Walton Primo G8i - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে ওয়াল্টনের একটি স্মার্টফোন হলো Walton Primo G8i। ফোনটিতে রয়েছে ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর চিপসেট।

৫.৩৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে সম্বলিত ফোনটিতে গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে থাকছে মালি টি-৮২০ জিপিইউ।

আপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১। সাথে থাকছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ হিসেবে ফোনটিতে রয়েছে ব্যাটারি সেভিং মোড সমর্থিত ২ হাজার ২৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। রয়েছে অটিজি এবং ফেস আনলক ফিচার।

বাজারে Walton Primo G8i ৩জি সংস্করণটির দাম ৫ হাজার ৯৯৯ টাকা। আর ৪জি সংস্করণটির দাম ৬ হাজার ১৯৯ টাকা।

Walton Primo G8i স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৩৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে
  • ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ হাজার ২৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Walton Primo GF7 (4G)

Walton Primo GF7 (4G) - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে ওয়াল্টনের আরেকটি স্মার্টফোন হলো Walton Primo GF7। অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো ভার্সন) আপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে রয়েছে ১.২৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6737H) চিপসেট।

১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের ফোনটিতে রয়েছে ৫.৩৪ ইঞ্চি ফুল ভিউ ডিসপ্লে, তবে তা FWVGA+ কোয়ালিটির।

ফোনটিতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে মালি-টি ৭২০। থাকছে ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি স্লট যার সাহায্য ফোনের স্টোরেজ ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে এফ/২.২ অ্যার্পাচারের ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ব্যাটারি সেভিং মোড সমর্থিত ২ হাজার ৭০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফোনটি দেশের বাজারে ৫ হাজার ৭৯৯ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

Walton Primo GF7 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৩৪ ইঞ্চি ফুল ভিউ FWVGA+ ডিসপ্লে
  • ১.২৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6737H) চিপসেট
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ হাজার ৭০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

৬-৭ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে দুটি স্মার্টফোন রয়েছে Walton Primo GM3 এবং Walton Primo H8।

Walton Primo GM3 (4G)

Walton Primo GM3 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

ওয়াল্টনের Walton Primo GM3 ফোনটিকে ফিচার-রিচ লো বাজেট স্মার্টফোন বলা যেতে পারে। ফোরজি সমর্থিত Walton Primo GM3 ফোনে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর চিপসেট।

আপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো ভার্সন)। সাথে থাকছে ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

ফোনটিতে ৫.৩৪ ইঞ্চি ফুল ভিউ FWVGA+ ডিসপ্লে রয়েছে, যা এই ফোনের একমাত্র ড্রব্যাক বলা যেতে পারে। এই বাজেটে ওয়াল্টনের অবশ্যই ফোনটিতে একটি এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহার করা উচিত ছিলো।

ছবি তোলার জন্য Walton Primo GM3 ফোনের পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ফোনটিতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে পাওয়ার ভিআর রগ (GE8100)। অটিজি এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট সমর্থিত ফোনটিতে রয়েছে ৬৪ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা।

রয়েছে ব্যাটারি সেভিং মোড সমর্থিত ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি বড় ব্যাটারি, যা এই প্রাইসের তুলনায় অনেকটাই বেশি।

বাজারে Walton Primo GM3 ফোনের দাম ৬ হাজার ৮৯৯ টাকা যা পূর্বে ছিল ৭ হাজার ১৯৯ টাকা।

Walton Primo GM3 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৩৪ ইঞ্চি ফুল ভিউ FWVGA+ ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর চিপসেট
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Walton Primo H8

Walton Primo H8 -  দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

৫.৪৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি+ ডিসপ্লে সম্বলিত Walton Primo H8 ফোনে রয়েছে ১.২৮ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6739) চিপসেট।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে রয়েছে ২/৩ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। জিপিইউ হিসেবে ফোনটিতে থাকছে পাওয়ার ভিআর (GE8100)।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে আরেকটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। রয়েছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার।

ফোনটির ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সংস্করণটির দাম ৬ হাজার ৮৯৯ টাকা। আর ৩ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সংস্করণটির দাম ৭ হাজার ৯৯৯ টাকা

Walton Primo H8 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৪৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.২৮ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6739) চিপসেট
  • ২/৩ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

৭-৮ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে তিনটি স্মার্টফোন রয়েছে itel S15 Pro, Infinix Smart 2 Pro এবং Symphony i97।

itel S15 Pro

itel S15 Pro - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আইটেলের একটি স্মার্টফোন হলো itel S15 Pro। ফোনটিতে থাকছে ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ আইপিএস ফুল ভিউ ডিসপ্লে। এর রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে থাকছে ১.৬ গিগাহার্টজ স্প্রেডট্রাম (Unisoc SC9863A)। গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে রয়েছে পাওয়ার ভিআর (GE8322) জিপিইউ।

ফোনটিতে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ৮+৫+০.৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার। ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৭ হাজার ৮৯০ টাকায়

itel S15 Pro স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ফুল ভিউ ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্টজ স্প্রেডট্রাম (UniSoC SC9863A) চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম
  • ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮+৫+০.৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Infinix Smart 2 Pro

Infinix Smart 2 Pro - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আরেকটি স্মার্টফোন হলো Infinix Smart 2 Pro। এতে রয়েছে একটি ৫.৫ ইঞ্চি এইচডি+ আইপিএস ফুল ভিউ ডিসপ্লে।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে থাকছে ১.৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6739)। গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে এতে থাকছে পাওয়ার ভিআর (GE8100) জিপিইউ।

ফোনটিতে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য Infinix Smart 2 Pro ফোনের পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার। ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৭ হাজার ৯৯০ টাকায়

Infinix Smart 2 Pro স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৫ ইঞ্চি এইচডি+ ফুল ভিউ ডিসপ্লে
  • ১.৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক (MT6739) চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Symphony i97

symphony i97 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

৭ হাজার টাকা বাজেটে আরেকটি স্মার্টফোন হলো Symphony i97। এতে রয়েছে ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ১৪৪০*৭২০ পিক্সেল।

১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেটের ফোনটিতে আপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই। এতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে আইএমজি ৮৩২২।

ফোনটিতে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে আরেকটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার। ফোনটির দাম ৭ হাজার ৪৯০ টাকা

Symphony i97 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

৮-৯ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে তিনটি স্মার্টফোন রয়েছে Infinix Hot S3, Walton Primo H8 Pro এবং Walton Primo RX7 Mini।

Infinix Hot S3

Infinix Hot S3 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

৫.৭ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি+ ডিসপ্লে সম্বলিত Infinix Hot S3 ফোনটিতে রয়েছে ১.৪ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর স্ন্যাপড্রাগন ৪৩০ চিপসেট।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.০ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে রয়েছে ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। জিপিইউ হিসেবে ফোনটিতে থাকছে এড্রিনো ৫০৫।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি বড় ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার।

ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৮ হাজার ৯৯০ টাকায় যা পূর্বে ছিলো ১২ হাজার ৯৯০ টাকা।

Infinix Hot S3 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.৪ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর স্ন্যাপড্রাগন ৪৩০ চিপসেট
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Walton Primo H8 Pro

Walton Primo H8 Pro - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আরেকটি ফোন হলো Walton Primo H8 Pro। ফোনটিতে রয়েছে ইউ-নচ স্টাইলের ৫.৭১ ইঞ্চি ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯.০ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনটিতে থাকছে ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর এআরএম কর্টেক্স-এ৫৫ চিপসেট।

৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের ফোনটিতে গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে থাকছে পাওয়ার ভিআর (GE8322) জিপিইউ।

ছবি তুলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে এফ/২ অ্যার্পাচারের ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ডুয়েল সিম ফোরজি সাপোর্ট সুবিধার পাশাপাশি ফোনটিতে রয়েছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক ফিচার।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার ৫২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফোনটির দাম ৮ হাজার ৪৯৯ টাকা

Walton Primo H8 Pro স্পেসিফিকেশন:–

  • ৫.৭১ ইঞ্চি ৭২০ পিক্সেল ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর এআরএম কর্টেক্স-এ৫৫ চিপসেট
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯.০ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার ৫২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Walton Primo RX7 Mini

Walton Primo RX7 Mini - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আরেকটি বেস্ট চয়েস হতে পারে ওয়াল্টনের Primo RX7 Mini ফোনটি। এতে রয়েছে ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে, এর রেজুলেশন ১৫২০*৭২০ পিক্সেল। থাকছে কর্নিং গরিলা গ্লাস প্রটেকশন।

ফোনটিতে রয়েছে ১.৮ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট। পাশাপাশি গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে এতে রয়েছে মালি জি৭২ এমপি৩ জিপিইউ।

অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে থাকছে ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে ১৩+৫ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ। সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ফেস আনলক ফিচার।

ফোনটির দাম ৮ হাজার ৭৯৯ টাকা। তবে ফোনটি অনলাইনে কিনলে আপনি এটি পেয়ে যাচ্ছেন ৭ হাজার ৭৯৯ টাকায়

Primo RX7 Mini স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.৮ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+৫ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

৯-১০ হাজার টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে তিনটি স্মার্টফোন রয়েছে Redmi 8A, Vivo Y90 এবং Symphony Z15।

Xiaomi Redmi 8A

Xiaomi Redmi 8A - ১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

শাওমির Redmi 8A এই বাজেটের মধ্যে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি স্মার্টফোন। ফোনটিতে রয়েছে ৬.২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে, এর রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

১.৯৫ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ চিপসেটের পাশাপাশি গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে রয়েছে এড্রিনো ৫০৫ জিপিইউ। রয়েছে ২/৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

ফোনটিতে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের জন্য রয়েছে ডেডিকেটেড স্লট যার সাহায্যে ফোনের স্টোরেজ ৫১২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই যা চলবে শাওমির কাস্টমাইজ এমআইইউআই ১০ এর উপর।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার এর বিশাল বড় ব্যাটারি। রয়েছে অটিজি এবং ফেস আনলক ফিচার। ফোনটির ২ জিবি সংস্করণটি আনঅফিশিয়ালভাবে পাওয়া যাচ্ছে ৯ হাজার ৫০০ টাকায়

Xiaomi Redmi 8A স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.৯৫ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Vivo Y90

Vivo Y90 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আরেকটি স্মার্টফোন হলো Vivo Y90। এই ফোনটিতে রয়েছে ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে, এর রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

২.০ গিগাহার্টজ অক্টো কোর মিডিয়াটেক হেলিও এ২২ (MT6761) চিপসেটের ফোনটিতে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। এছাড়া রয়েছে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনটি চলবে কাস্টমাইজ ফানটাচ ওস ৪.৫ এর উপর। ফোনটিতে গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে থাকছে পাওয়ার ভিআর (GE8320) জিপিইউ।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত এফ/২.০ অ্যার্পাচারের ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে এফ/১.৮ অ্যার্পাচারের ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৪ হাজার ৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। থাকছে অটিজি এবং ফেস আনলক ফিচার। ফোনটির দাম ৯ হাজার ৯৯০ টাকা

Vivo Y90 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ২.০ গিগাহার্টজ অক্টো কোর মিডিয়াটেক হেলিও এ২২ চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৪ হাজার ৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Symphony Z15

Symphony Z15 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

মিনিমাল নচ স্টাইলের Symphony Z15 ফোনটিতে রয়েছে ৬.০৯ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে। রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে থাকছে ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর মিডিয়াটেক চিপসেট। ফোনটিতে গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে থাকছে আইএমজি ৮৩২২ (IMG 8322) জিপিইউ।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি বড় ব্যাটারি। থাকছে অটিজি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ফেস আনলক ফিচার। ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৯ হাজার ৪৯৯ টাকায়

Symphony Z15 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.০৯ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর মিডিয়াটেক চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

১০-১০ হাজার ৯৯৯ টাকা বাজেটে সেরা:

এই বাজেটে দুটি স্মার্টফোন রয়েছে Samsung Galaxy M10 এবং Vivo Y91C।

Samsung Galaxy M10

Samsung Galaxy M10 - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

Samsung Galaxy M10 ফোনটিতে রয়েছে ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ইনফিনিটি-ভি ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনটি চলবে স্যামসাংয়ের নিজস্ব ইউজার ইন্টারফেস স্যামসাং এক্সপেরিয়েন্স ৯.৫ এর উপর।

ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে রয়েছে ১৪ ন্যানোমিটার অক্টাকোর এক্সিনোস ৭৮৭০। সাথে থাকছে ২/৩ জিবি র‍্যাম ও ১৬/৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। তবে বর্তমানে আমাদের দেশে শুধু ২/১৬ জিবি ভেরিয়েন্টটি পাওয়া যাবে।

ছবি তোলার জন্য Samsung Galaxy M10 ফোনের পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সার ও ৫ মেগাপিক্সেল ডেপ্ত সেন্সারের ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ। ফোনটির সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

ফোনটিতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে মালি-টি ৮৩০ এমপি১। আরো থাকছে অটিজি এবং ফেস আনলক ফিচার। ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৩ হাজার ৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি ব্যাটারি।

ফোনটি পাওয়া যাবে ১০ হাজার ৯৯৯ টাকায়

Samsung Galaxy M10 স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ইনফিনিটি-ভি ডিসপ্লে
  • অক্টাকোর এক্সিনোস ৭৮৭০ চিপসেট
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৩ হাজার ৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

Vivo Y91C

Vivo Y91C - দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন ২০১৯

এই বাজেটে আরেকটি ফোন হলো Vivo Y91C। এতে রয়েছে ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটিতে রয়েছে ২ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর মিডিয়াটেক হেলিও পি ২২ (MT6762R) প্রসেসর।

জিপিইউ হিসেবে ফোনটিতে রয়েছে পাওয়ার ভিআর (GE8320)। রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে অটো ফোকাস সমর্থিত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তুলার জন্য সামনে রয়েছে এফ/১.৮ অ্যার্পাচারের ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ফোনটিতে ব্যাকআপ সুবিধা দিতে রয়েছে ৪ হাজার ৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি বড় ব্যাটারি। থাকছে অটিজি ও ফেস আনলক ফিচার। ফোনটি দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১০ হাজার ৯৯০ টাকায়

Vivo Y91C স্পেসিফিকেশন:–

  • ৬.২২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে
  • ২ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক হেলিও পি ২২ (MT6762R) চিপসেটে
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ৪ হাজার ৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

মতামত

স্মার্টফোন কেনার আগে অবশ্যই ক্যামেরা, ব্যাটারি লাইফ, স্ক্রিনসাইজ, র‌্যাম, মেমরি, প্রসেসর, অ্যান্ড্রয়েড ভার্সান ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে সঠিক স্মার্টফোনটি সিলেক্ট করতে হবে।

তা না হলে পরবর্তীতে সমস্যায় পড়তে হবে। আপনার বাজেট যদি দশ হাজারের মধ্যে হয় তাহলে উপরে উল্লেখিত স্মার্টফোনগুলো দেখতে পারেন।

আর হ্যাঁ, উপরে যে স্মার্টফোনগুলোর প্রাইস উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলো যে কোন সময় পরিবর্তিত হতে পারে তাই প্রয়োজন অনুযায়ী পরবর্তীতে আপডেট করা হবে।

আর পোস্ট হতে যদি কোন স্মার্টফোন বাদ গিয়ে থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আশা করি পোস্টটি ভালো লেগেছে। আর পোস্টে কোন রকম ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন!

Comments are closed.