Powered by Ajaxy
Nov 20, 2019
177 Views
Comments Off on সঠিক নিয়মে মোবাইলে চার্জ করুন না দেখলে পুরাই মিস!

সঠিক নিয়মে মোবাইলে চার্জ করুন না দেখলে পুরাই মিস!

Written by

১.ফুল চারজিং:

অনেকেই আছেন যারা মোবাইল চার্জে দিয়ে ফুল চার্জ না করে মোবাইল চার্জ থেকে খুলেন না। কিন্তু এইটা ব্যাটারির জন্য ক্ষতিকর।

প্রতিবার ফুল চার্জ করার জন্য একটু একটু করে ব্যাটারি ক্ষমতা কমে যায়
এইভাবে ছয় সাত মাস পর দেখা যায় যে ব্যাটারিতে একদমই চার্জ থাকেনা। তাই সব সময় ফুল চার্জ করবেন না। 85% হলেই খুলে ফেলুন।

২.সারারাত চার্জ করা:

এইটা করা আমারো অভ্যাস। প্রায় প্রতিদিনই সারারাত ফোনটা চার্জে লাগিয়ে রেখে সকালে উঠে চার্জ থেকে খুলি। এতে করে ব্যাটারি বেশ ভাল ব্যাকআপ দেয়। অনেকে মনে করে এতে করে অভারচার্জিং হয়ে ব্যাটারি ফুলে যায় বা ড্যামেজ হয়ে যায়।

কিন্তু আজকালকার ফোনগুলো এমনভাবে বানানো হয় যে ১০০% চার্জের পর আর চার্জ নেই না। তাই ফোন সারারাত চার্জে লাগিয়ে রাখলেও কোন ক্ষতি হয় না।

৩.ফোন খোলা রেখে চার্জ দেয়া:

খবরদার যদি ভাল ব্যাটারি ব্যাকআপ পেতে চান তাইলে অবশ্যই মোবাইল বন্ধ করে চার্জে দিবেন।

এইবার দেখা যাক কত mAh এর জন্য কতক্ষণ চার্জ থাকবে। আপনি যদি 1500-1600 mAh এর ব্যাটারি চালান তাইলে নেট ইউজ করলে টেনে-টুনে ৩ ঘন্টা ব্যাকআপ পাবেন। 18-2000 mAh এর ব্যাটারি ব্যবহার করলে ব্যাকআপ পাবেন প্রায় ৪ ঘন্টার মতো। 2200-2500 mAh এর ব্যাটারি ব্যবহার করলে ব্যাকআপ পাবেন প্রায় ৬ ঘন্টা।

3000-3500 mAh এর ব্যাটারি ব্যবহার করলে ব্যাকআপ পাবেন ৮ ঘন্টা। 4000 mAh এর ব্যাটারি ব্যবহারে ব্যাকআপ পাবেন টানা ১০ ঘন্টা। যদি আপনি আপনার ব্যাটারির যতটুকু ব্যাকআপ পাওয়া দরকার তার থেকে কম পান তাইলে কাষ্টোমার কেয়ারে যান।
আরো একটি কথা মোবাইলের চার্জ কখনো ২০% এর নিচে আনবেন না।

এতে করে ব্যাটারি ধীরে ধীরে ডাউন হতে থাকবে। আর একটানা চার্জ না দিয়ে দিয়ে বেশ কয়েকবার চার্জ দিবেন। আপনাকে যদি সকালে এক বালতি ভাত দেওয়া হয় তাইলে হয়তো আপনার সারাদিন আর কিছু খেতে হবে না। কিন্ত এতে করে আপনার ক্ষতি হবে আপনার শরীরের ভেতরের বিভিন্ন জায়গায় খুব চাপ পড়বে।

আর আপনি যদি সকালে এক বালতি না খেয়ে তিনবেলা এক প্লেট করে খেতেন তাইলে আপনার জন্য ভাল হতো। এভাবে ব্যাটারিও একবারে ফুল চার্জ না করে একটু একটু করে চার্জ দিবেন। একমাত্র তাহলেই আপনার বেস্ট ফ্রেন্ড আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনটা ভাল থাকবে।

Comments are closed.