Powered by Ajaxy
Aug 3, 2019
151 Views

যেসব কারণে ফোন চার্জ হতে বেশি সময় লাগে

Written by

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অনেক সময় স্বাভাবিকের চেয়ে ফোন চার্জ হতে বেশি সময় লাগে। কী কারণে ধীর গতিতে ফোন চার্জ হয় তা অনেকেই বুঝতে পারেন না।

ধীর গতিতে ফোন চার্জ হওয়ার কারণ ও সমস্যাটি সমাধানের কিছু উপায় তুলে ধরা হলো এই প্রতিবেদনে।

চার্জিং ক্যাবল যাচাই

চার্জিংয়ের গতি কমে যাওয়ার পেছনে অনেক ক্ষেত্রেই চার্জিং ক্যাবল দায়ী। দীর্ঘদিন ব্যবহারের ফলে ক্যাবলের কার্যক্ষমতা কমে যায়। এছাড়া, চার্জিং ক্যাবলের অগ্রভাগ ক্ষয়ে যাওয়া কিংবা মরিচা পড়ে যাওয়ার মতো অবস্থার সৃষ্টি হয়। তাই ত্রুটিপূর্ণ এমন ক্যাবলের কারণে স্মার্টফোনের ব্যাটারি ফুল চার্জ হতে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি সময় লাগে। এসব ক্ষেত্রে ক্যাবলটি পরিবর্তন করে নিলেই ফোন আবার স্বাভাবিক গতিতে চার্জ হবে।

চার্জিং অ্যাডাপ্টর যাচাই

কিছু ক্ষেত্রে চার্জিং অ্যাডাপ্টরের সক্ষমতা কমে যায়। বর্তমান বাজার অনুযায়ী স্মার্টফোন নির্মাতারা স্মার্টফোনের সঙ্গে এক, দুই কিংবা তিন অ্যাম্পিয়ার সক্ষমতার চার্জার প্রদান করেন। সাধারণ হিসাব অনুযায়ী এক অ্যাম্পিয়ারের চার্জার গড়ে ৭০০-৮৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার হারে, দুই অ্যাম্পিয়ারের চার্জার গড়ে ১৫০০-১৬০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার হারে ও তিন অ্যাম্পিয়ারের চার্জার গড়ে ২৫০০-২৬০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার হারে স্মার্টফোনের ব্যাটারিকে চার্জ করে থাকে।

স্মার্টফোনে চার্জিংয়ের হার কেমন তা একটি অ্যাপের দ্বারা যাচাই করে নেয়া যাবে। ‘অ্যাম্পিয়ার’ নামের এই অ্যাপ গুগল প্লের এই ঠিকানা হতে ইন্সটল করে নেয়া যাবে। চার্জিং স্লো অনুভূত হলে তাই এই অ্যাপ দ্বারা চার্জের হার জেনে নেয়া যেতে পারে। স্বাভাবিকের চেয়ে কম হারে চার্জ হলে চার্জারটি পরিবর্তন করে এই সমস্যার সমাধান করা যাবে।

ব্যাটারি পরিবর্তন

চার্জার কিংবা ক্যাবল ঠিক থাকলেও অনেক সময় ব্যাটারির সমস্যার কারণে চার্জ ধীর গতিতে হতে পারে। তবে এক্ষেত্রে চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যাওয়া, স্মার্টফোন গরম হয়ে যাওয়া কিংবা অস্বাভাবিক হারে চার্জের পরিমাণ বাড়া-কমা করার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। এসব ক্ষেত্রে ব্যাটারি পরিবর্তন করলে সমস্যার সমাধান হয়।

চার্জিং পোর্টে সমস্যা

অনেক সময় চার্জিং পোর্টে সমস্যা হতে পারে। এক্ষেত্রে চার্জার ঠিকভাবে সংযোগ না পাওয়ার কারণে চার্জিং প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। এ কারণে ফোন ধীর গতিতে চার্জ হলে, অনুমোদিত সার্ভিস সেন্টার থেকে চার্জিং পোর্ট সারিয়ে নিতে হবে।

চার্জে দেয়া অবস্থায় ফোন না ব্যবহার করা

অনেকেই  চার্জে দেয়া অবস্থায় স্মার্টফোন ব্যবহার করেন। এমনকি চার্জে দেয়া অবস্থায় হাই রেজুলেশনের গেইমও খেলেন। ফলে চার্জিং প্রক্রিয়া বিলম্ব হয়। কোন কোনো ক্ষেত্রে এতে ব্যাটারিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

তাই চার্জে দেয়া অবস্থায় স্মার্টফোন ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে।

Article Categories:
Mobile

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *